বিস্তারিত

নিজামীর রিভিউ দ্রুত শুনানির আবেদন রাষ্ট্রপক্ষের

bdnews ছবি : সংগ্রহকৃত

জামায়াতে ইমলামির আমির মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর আপিল বিভাগের রায় পুনর্বিবেচনার (রিভিউ) আবেদন দ্রুত শুনানির জন্য আবেদন জানিয়েছে রাষ্ট্রপক্ষ। আজ আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি মির্জা হোসেইন হায়দারের আদালতে এ আবেদন জানানো হয়। মির্জা হোসেইন হায়দারের বেঞ্চ আবেদনটি আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে পাঠিয়ে দেন। আগামী ৩ এপ্রিল আবেদনটি শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে। মঙ্গলবার মাওলানা মতিউর রহমান নিজামী আপিল বিভাগের রায় পুনর্বিবেচনার (রিভিউ) আবেদন দায়ের করেন। ৭০ পৃষ্ঠার রিভিউ আবেদনে মোট ৪৬টি গ্রাউন্ডে মৃত্যুদণ্ড থেকে মাওলানা নিজামীর খালাস চাওয়া হয়।

তার পক্ষে রিভিউ আবেদনের শুনানি করবেন সুপ্রিম কোর্ট বারের সভাপতি অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন। গত ১৫ মার্চ মাওলানা নিজামীর আপিলের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ করে আপিল বিভাগ। ১৫৩ পৃষ্ঠার পূর্ণাঙ্গ রায় লিখেছেন বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানা। গত ৬ জানুয়ারি মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীকে ট্রাইব্যুনালের দেয়া মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখে রায় ঘোষণা করেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এসকে) সিনহার নেতৃত্বে আপিল বিভাগের চার বিচারপতির বেঞ্চ। ট্রাইব্যুনালের রায়ে মাওলানা নিজামীকে চারটি অভিযোগে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছিল। আপিল বিভাগের রায়ে একটি বাদ দিয়ে তিন অভিযোগে মৃত্যুদণ্ড বহাল রাখা হয়।

অপর একটি অভিযোগ থেকে তাকে অব্যাহতি দেয়া হয়। রায়ে মাওলানা নিজামীর আপিল আংশিক গ্রহণ করে রাষ্ট্রপক্ষের দায়ের করা ২, ৬ ও ১৬ নম্বর অভিযোগে ট্রাইব্যুনালের দেয়া মৃত্যুদণ্ড বহাল রাখা হয়। এ ছাড়া ৭ ও ৮ নম্বর অভিযোগে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডও বহাল রাখা হয়। ২০১৪ সালের ২৩ নভেম্বর মাওলানা নিজামী খালাস চেয়ে আপিল আবেদন করেন। তার আগে ২৯ অক্টোবর মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীকে মৃত্যুদণ্ড দেয় আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১। তার বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের মোট ১৬টি অভিযোগের মধ্যে ৮টিতে দোষি সাব্যস্ত করা হয়। এর মধ্যে ৪টি অভিযোগে তাকে মৃত্যুদণ্ড এবং অপর ৪টি অভিযোগে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রদান করা হয়। এ ছাড়া বাকি ৮টি অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় মাওলানা নিজামীকে অভিযোগগুলো থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়।

সংবাদের ধরন : বাংলাদেশ নিউজ : স্টাফ রিপোর্টার