বিস্তারিত

নিউ ইয়র্কবাসীর ভ্যালেন্টাইনস ডে ঘরেই কাটবে

ছবি : সংগ্রহকৃত

স্মরণকালের ভয়াবহ শৈত্যপ্রবাহের কারণে নিউ ইয়র্ক অঞ্চলের সবাইকে একান্ত জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে না যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে, যাতে বিষাদে পরিণত হয়েছে ভ্যালেন্টাইনস ডে’র আমেজ।ভ্যালেন্টাইনস ডে উপলক্ষে বাংলাদেশিদের বেশ কয়েকটি আয়োজন বাতিল করা হয়েছে। রেস্তোরাঁগুলোর পক্ষ থেকে ভালোবাসা দিবসের মেন্যু বাতিল করার ঘোষণাও দেওয়া হয়েছে।সবচেয়ে বেশি বিপাকে পড়েছেন ফুল ব্যবসায়ীরা। কারণ ভ্যালেন্টাইনস ডে সামনে রেখে তারা প্রচুর ফুল জোগাড় করেছেন। এখন শীতের কারণে মানুষ ঘর থেকে বেরুতে না পারলে সেসব ফুলের একটা বড় অংশ অবিক্রিত থেকে যেতে পারে।নিউ ইয়র্কে এ দিন কমপক্ষে ২৫ কোটি গোলাপ বিক্রি হয় বলে বিক্রেতারা জানান।

ন্যাশনাল রিটেইল ফেডারেশনের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৫ সালের ভ্যালেন্টাইনস ডে’তে ৩৭ দশমিক ৮ শতাংশ আমেরিকানই ফুল কেনেন। এ বাবদ ব্যয় হয় ২১০ কোটি ডলার। এর বাইরে ছিল রেস্তোরাঁ ও গাড়ির জ্বালানি ব্যয়।নিউ ইয়র্ক সিটির মেয়র বিল ডি ব্লাসিয়ো শনিবার সকালে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে জাতীয় আবহাওয়া দফতরের বরাত দিয়ে জানান, এখন থেকে রোববার পর্যন্ত তাপমাত্রা হিমাঙ্কের ২০ থেকে ২৫ ডিগ্রি ফারেনহাইট নিচে থাকবে।এ অবস্থায় জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউ যেন ঘরের বাইরে না যান। কর্মস্থলে হিটিং মেশিন আছে কি না- তা নিশ্চিত হয়ে পর্যাপ্ত গরম কাপড় পরে যেতে হবে।সংবাদ সম্মেলনে নিউ ইয়র্ক সিটির ইমার্জেন্সি ম্যানেজমেন্ট কমিশনার যোসেফ ইসপসিটো বলেন, সাম্প্রতিক সময়ের ভয়াবহতম এ শৈত্যপ্রবাহের সময় বয়স্ক এবং শিশুদের অবশ্যই নিরাপদ স্থানে অবস্থান করা উচিত।যারা ধর্ম চর্চার জন্য চার্চ, সিনাগগ, কিংবা ভ্যালেন্টাইনস ডে’র বিশেষ কোনো অনুষ্ঠানে যেতেই চান, তারা যেন শরীর উষ্ণ রাখার যাবতীয় পোশাক পরিধান করেন। সঙ্গে পোষা কুকুর নিতে চাইলে সেই কুকুরকেও গরম পোশাক পরাতে হবে।

সংবাদের ধরন : আন্তর্জাতিক নিউজ : স্টাফ রিপোর্টার