বিস্তারিত

ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের প্রতিবাদে শাহবাগে গণজমায়েত

ছবি : সংগ্রহকৃত

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে এক গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে বর্বরোচিত নির্যাতনসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের প্রতিবাদে রাজধানীর শাহবাগে চলছে পূর্বঘোষিত গণজমায়েত।

‘ধর্ষকের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ’ ব্যানারে আজ মঙ্গলবার (৬ অক্টোবর) দুপুর ১২টার দিকে শুরু হয় এ কর্মসূচি। ছাত্র ইউনিয়ন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টসহ প্রগতিশীল ছাত্রসংগঠনের নেতাকর্মীরা কালো পতাকা নিয়ে এতে যোগ দিয়েছেন। উপস্থিত আছেন সাহিত্যিক, লেখক, ব্লগাররা‌ও।

আন্দোলনকারীরা জানিয়েছেন, শাহবাগে অবস্থিত জাতীয় জাদুঘরের সামনে এই কর্মসূচিতে বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীরা অংশ নিচ্ছেন। এসব সংগঠনের মধ্যে যুবসংগঠন, সাংস্কৃতিক সংগঠনসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীরা রয়েছেন। যোগ দিয়েছে সর্বস্তরের সাধারণ মানুষও। এ ছাড়া টিএসসির রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ব্যানারে অবস্থান কর্মসূচি চলছে। মূলত সেখানে বিভিন্ন হলের ডাকসু নেতারা রয়েছেন। তাঁদের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এসব সাধারণ শিক্ষার্থী এসেছে রাজধানীর মোহাম্মদপুর, মিরপুরসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে।

এর আগে সকাল সাড়ে ১১টার দিকে অবস্থান নেয় আন্দোলনকারীরা। এরও আগে বৃষ্টি উপেক্ষা করে শাহবাগ মোড়ে আসতে শুরু করে ধর্ষণবিরোধী আন্দোলনকারীরা। তবে কর্মসূচিতে বাধা আসে বৃষ্টির কারণে। পরে বৃষ্টি কমলে দুপুর ১২টার দিকে শুরু হয় কর্মসূচি।

এদিকে নারী নির্যাতনের ঘটনা বৃদ্ধিতে উদ্বেগ জানিয়ে অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট। আজ মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে প্রতিবাদী অবস্থান কর্মসূচি পালনের কথা রয়েছে তাঁদের।

সোয়া ১টার দিকে তারা শাহবাগ মোড় থেকে কালো পতাকা মিছিল নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকা ঘুরে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় অভিমুখে যাত্রা করে। হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টাল মোড়ে পুলিশ তাদের আটকে দেয়। এ সময় পুলিশের সাথে মিছিলকারীদের হাতাহাতি হয়। পুলিশের লাঠিপেটায় ছাত্র ইউনিয়নের বেশ কয়েকজন নেতা-কর্মী আহত হন।

পরে মিছিলকারীরা সেখানেই অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন। প্রায় আধা ঘণ্টা সেখানে অবস্থান শেষে মিছিলকারীরা আবার শাহবাগে হয়ে টিএসসি এলাকায় ফিরে রাজু ভাস্কর্যের সামনে অবস্থান নেন।।

সংবাদের ধরন : র্শীষ সংবাদ নিউজ : নিউজ ডেস্ক