বিস্তারিত

দুই বাচ্চা রেখে কাজের মেয়েকে বিয়ে করলো দায়রা জজ

ছবি : সংগ্রহকৃত

দুইবাচ্চা রেখে কাজের মেয়েকে বিয়ের অভিযোগ উঠেছে গাইবান্ধায় অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আলমগীর কবির রাজের বিরুদ্ধে।

বিচারকের প্রথম স্ত্রী বলেন, ‘তোমার কয়টা স্ত্রী থাকতে পারে? তোমার বিবেকে বাঁধে নাই? আমাদের না দুইটা বাচ্চা আছে। তুমি না জ্ঞানী লোক। একজন বিচারক।’

এ অবস্থায় রাজের নতুন বাসায় ঢুকে ভাংচুর ও অন্তসত্তা নতুন স্ত্রীর উপর হামলা অভিযোগ উঠেছে দ্বিতীয় স্ত্রীর বিরুদ্ধে।

জানাযায়, চারদিন আগে শহরের ভি-এইড রোডের একটি বাসা ভাড়া নেন অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আলমগীর কবির। মঙ্গলবার (৫ জুন) দুপুরে বাসায় যান তার প্রথম স্ত্রী শামীমা আকতার।

এক পর্যায়ে কর্মস্থলে থাকা আলমগীর কবিরকে মোবাইল ফোনে খবর দেন দ্বিতীয় স্ত্রী মোনালিসা। তার অভিযোগ, বাসার আসবাবপত্র ভাঙচুরের পাশাপাশি তার পেটে লাথি মারেন শামীমা। এক পর্যায়ে একটি ঘরে ঢুকে দরজা বন্ধ করে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন প্রথম স্ত্রী শামীমা। খবর পেয়ে, ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ।

দ্বিতীয় স্ত্রী বলেন, ‘জজ সাহেবের বাসায় কাজ করার সময় আমাকে তার ভালো লাগে। তারপর আমাদের বিয়ে হয়। বিয়ের পর আমি দেশের বাড়ি চলে যাই। তার ২৫ দিন পরে বাসা ভাড়া করে আমাকে ঢাকায় নিয়ে আসেন।’

বাড়ির কেয়ারটেকার বলেন, ‘বিচারকের প্রথম স্ত্রী এসে ফ্যানের সঙ্গে দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করার চেষ্টা করেন।’

সংবাদের ধরন : বাংলাদেশ নিউজ : নিউজ ডেস্ক