বিস্তারিত

তুষারপাতে বিপর্যস্ত ইউরোপ

ছবি : সংগ্রহকৃত

তুষারপাতে বিপর্যস্ত ইউরোপ। চলমান এই তুষারপাতে মৃতের সংখ্যা প্রতিদিনই বাড়ছে। সবশেষ মৃতের সংখ্যা ৬০ জনে এসে দাঁড়িয়েছে।

চলমান ভারি তুষারপাতে সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা গেছে পোল্যান্ডে। সেখানে ২৩ জন মারা গেছেন। তাঁদের বেশির ভাগই ছিন্নমূল, যাঁরা মূলত রাস্তায় থাকেন। সেখানে তাপমাত্রা মাইনাস ১৫ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডের নীচে নেমে গেছে।

এ ছাড়া চেক রিপাবলিকে ছয়জন, লিথুয়ানিয়ায় পাঁচজন, ফ্রান্স ও স্লোভাকিয়ায় আটজন, স্পেনে তিনজন, ইতালি, সার্বিয়া, রোমানিয়া ও স্লোভেনিয়ায় আটজন এবং ব্রিটেন ও নেদারল্যান্ডসে দুজনের মৃত্যু হয়েছে।

তা ছাড়া ঠান্ডাজনিত রোগে ভুগছেন অনেকেই। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সতর্কবার্তা জানিয়েছে, এ ধরনের বিপর্যয় দরিদ্র, গৃহহীন এবং অভিবাসীদের জন্য হুমকি হয়ে দাঁড়াবে।

এক বিবৃতিতে সংস্থাটি জানায়, ঠান্ডাজনিত রোগ-ব্যাধিতে বৃদ্ধ ও শিশু আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেশি থাকে। আবার যাঁরা অনেক দিন ধরে রোগ-ব্যাধিতে আক্রান্ত কিংবা যাঁদের শারীরিক বা মানসিক নানা সমস্যা রয়েছে, তাঁরাই এ সময়ে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে রয়েছেন।

বৈরী আবহাওয়ার কারণে ইউরোপের বেশ কয়েকটি বিমানবন্দরে বিমান চলাচল বন্ধ রয়েছে। বাতিল করা হয়েছে কয়েকশ ফ্লাইট। যাত্রীদের বিমানবন্দরে না আসার অনুরোধ জানানো হয়েছে। বন্ধ রয়েছে রাস্তা, স্কুলসহ বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান।

আবহাওয়া বার্তায় জানা যায়, এরই মধ্যে ইউরোপের বিভিন্ন স্থানে আবহাওয়ার উন্নতি হতে শুরু করেছে। আশা করা যাচ্ছে, দু-এক দিনের মধ্যে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে।

সংবাদের ধরন : আন্তর্জাতিক নিউজ : নিউজ ডেস্ক