বিস্তারিত

ঢাকা মেডিকেলের সার্জারি বিভাগের একটি ইউনিট লকডাউন

ছবি : সংগ্রহকৃত

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের ৫ নস্বর ইউনিট লক ডাউন করা হয়েছে। সার্জারি বিভাগের এই ইউনিটে ভর্তি এক রোগী করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়ার পর কর্তৃপক্ষ এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এই ইউনিটের অন্যান্য রোগীদের কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। আর সার্জারি বিভাগের যে চিকিৎসক ও নার্সরা মৃত ওই ব্যক্তিকে চিকিৎসা দিয়েছেন তাদেরকেও হোম কোয়ারেন্টিনে নেয়া হয়েছে।

৮ই এপ্রিল সার্জারি বিভাগের ২১৬ নম্বর ওয়ার্ডে গেণ্ডারিয়ার ৬৩ বছর বয়সী মুফতি আব্দুল্লাহ নামের এক রোগীকে ভর্তি করা হয়েছে। পরবর্তীতে রোগীর উপসর্গ ও দৈহিক পরীক্ষা এবং তার পূর্বের এক্সরে রিপোর্ট দেখে তাকে করোনা রোগী হিসেবে সন্দেহ হয়। এছাড়া ওই রোগী ঢামেকে ভর্তি হওয়ার আগে ঢাকার আসগর আলী হাসপাতালে শ্বাসকষ্টের সমস্যা নিয়ে চিকিৎসাধীন ছিলেন। ওই হাসপাতাল থেকে তার নমুনা সংগ্রহ করে আইইডিসিআরে পাঠানো হয়। কিন্তু রিপোর্ট প্রাপ্তির আগেই ওই রোগী মৃত্যুর ঝুঁকিপূর্ণ ছাড়পত্র নিয়ে তথ্যগোপন করে ঢামেকে এসে ভর্তি হয়। পরবর্তীতে তার করোনা পজিটিভ বলে জানা যায়। তাই সাধারন মানুষ ও চিকিৎসকদের স্বার্থের কথা বিবেচনা করে ওই রোগীকে চিকিৎসাদানকারী চিকিৎসক, নার্সদের হোম কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করা হয়।

সংবাদের ধরন : র্শীষ সংবাদ নিউজ : নিউজ ডেস্ক