বিস্তারিত

ট্রাম্পের উত্থানে দায়ী মিডিয়া :ওবামা

bdnews,bd news,bangla news,bangla newspaper ,bangla news paper,bangla news 24,banglanews,bd news 24,bd news paper,all bangla news paper,all bangla newspaper ছবি : সংগ্রহকৃত

bd news,bdnews,bdnews24,bdnews24 bangla,bd news 24,bangla news,bangla,bangla news paper,all bangla newspaper,bangladesh newspapers,all bangla newspaper,bangla news paper,bangladesh newspapers,all bangla newspapers,bd news 24,bangla news today,bd news paper,all bangla news paper,bangladeshi newspaper,all bangla newspaper,all bangla newspapers,bdnews,bangla news,bangla newspaper,bangla news paper,bangla news 24,banglanews,bd news 24,bangla news today,bd news paper,all bangla news paper,bangladeshi newspaper,all bangla newspaper,all bangla newspapers

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা সাংবাদিকদের প্রতি ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে মনোনয়ন প্রার্থীদের খবর প্রচারের ব্যাপারে আরও বেশি সচেতন ও সতর্ক হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। ওয়াশিংটনে এক পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের সঙ্গে নৈশভোজে আলাপকালে সোমবার তিনি এ আহ্বান জানান। ওবামা বলেন, প্রার্থীরা অনেকে অনেক কথা বলতে পারেন। তবে সব কিছু ফলাও করে প্রচার করা সাংবাদিকদের উচিত নয়। বিশেষ করে যারা আগ-পাছ বিবেচনা না করে কথা বলে, তাদের বক্তব্য প্রচারের সময় সংবাদ মাধ্যমগুলোকে অবশ্যই নিজেদের বুদ্ধি ও বিবেচনা প্রয়োগ করতে হবে। তিনি ট্রাম্পের এতদূর উঠে আসার পেছনে গণমাধ্যমকেও দায়ী করেন। খবর : এএফপি, রয়টার্স, বিবিসি।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন নিয়ে বারাক ওবামা এখনও গুরুত্বের সঙ্গে তেমন কিছু বলেননি। এমনকি তিনি কাকে সমর্থন দেবেন, সেটাও পরিষ্কার করেননি। তবে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে রিপাবলিকান মনোনয়ন প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের নামোচ্চারণ না করলেও ওবামার লক্ষ্য যে এই ধনকুবের প্রার্থীই, সেটা বুঝতে কারও সমস্যা হয়নি। এদিন ওবামা কঠোর ভাষায় প্রার্থীদের নির্বাচনী প্রচারে দায়িত্বজ্ঞানহীন অতিকথন এবং অদ্ভুত সব কথার যে চর্চা চলছে, তার নিন্দা করেন। একই সঙ্গে ট্রাম্পের সব বক্তব্য হুবহু প্রচারেরও সমালোচনা করেন তিনি।

রিপাবলিকান মনোনয়ন প্রার্থী ট্রাম্পের বক্তব্য ঘন ঘন প্রচার এবং তার সাক্ষাৎকার নেওয়ার যে প্রবণতা চলছে তাতে অসন্তুষ্টি প্রকাশ করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘এতে ট্রাম্প প্রশ্রয় পাচ্ছেন এবং বিচার বিবেচনা না করে উল্টাপাল্টা কথাবার্তার পরিমাণও বাড়িয়ে দিয়েছেন।’ ওবামার মতে, মিডিয়া যদি কারও হালকা কথাবার্তা প্রচারে না মেতে বরং অনুসন্ধানী ও তদন্তমূলক খবর প্রকাশ করে, তাতে ভোটাররাই উপকৃত হবেন। ওবামা মার্কিন রাজনীতির কথা উল্লেখ করে বলেন, বুঝতে হবে, মার্কিন রাজনীতি শুধু যুক্তরাষ্ট্রেরই আগ্রহের বিন্দু নয়, এতে চোখ রাখছে বিশ্বের সব মানুষই। সুতরাং এমন কিছু খবর প্রকাশ করা উচিত হবে না, যাতে দেশের বাইরে পুরো বিশ্বেই মার্কিন রাজনীতি নিয়ে নেতিবাচক ধারণার সৃষ্টি হয়। তিনি অস্কারবিজয়ী সংবাদভিত্তিক ছবি ‘স্পটলাইট’-এর কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘এটা দেখে আমরা বুঝতে পারি, সঠিক এবং গঠনমূলক খবরের প্রতি মানুষের কী পরিমাণ আগ্রহ রয়েছে।’

উত্তর কোরিয়ার হুমকি নিয়ে কথা বলবেন ওবামা

উত্তর কোরিয়ার তরফ থেকে পারমাণবিক হামলার হুমকি নিয়ে জাপান ও দক্ষিণ কোরীয় নেতাদের সঙ্গে কথা বলবেন বারাক ওবামা। ওয়াশিংটনে চলতি সপ্তাহে অনুষ্ঠেয় বৃহত্তর পারমাণবিক নিরাপত্তা সংক্রান্ত আন্তঃদেশীয় বৈঠক চলাকালে দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানের সঙ্গে ত্রিপক্ষীয় বৈঠকে এ নিয়ে আলোচনা করার কথা রয়েছে। ওবামা বলেন, ‘সম্ভাব্য’ হামলার ব্যাপারে তিন দেশে নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে নেওয়াটা জরুরি।’ ওদিকে বৈঠক চলাকালে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়িপ এরদোগানের সঙ্গে বৈঠক করার ব্যাপারে অসম্মতির কথা বলে দিয়েছেন তিনি। আগামী বৃহস্পতি ও শুক্রবার এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা।

ট্রাম্প একাই সমাধান করতে পারবেন পাকিস্তানের সমস্যা? : লাহোরের গুলশান-ই-ইবাল শিশুপার্কে জঙ্গি হামলায় ৭২ জন নিহত হওয়ার মূলে যে সমস্যা, সে সমস্যা একাই সমাধান করতে পারবেন বলে দাবি করেছেন রিপাবলিকান দল থেকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে মনোনয়ন প্রার্থী ধনকুবের ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে তিনি এ ঘটনার জন্য বিশেষ কোনো গোষ্ঠীর প্রতি নিন্দা জ্ঞাপন করেননি। সোমবার ট্রাম্প ওই দাবি করেছেন। ওদিকে ডেমোক্রেট প্রার্থী বার্নি স্যান্ডার্স এই ঘটনায় নিন্দা জানান।

ডোনাল্ড ট্রাম্প কী করে পাকিস্তানের ওই সমস্যা একাই সমাধান করে ফেলবেন, তা অবশ্য ভেঙে বলেননি।

সংবাদের ধরন : আন্তর্জাতিক নিউজ : স্টাফ রিপোর্টার