বিস্তারিত

টিকটক অপু কারাগারে

ছবি : সংগ্রহকৃত

সড়কে মারামারি ও ছিনতাইয়ের ঘটনায় টিকটকের জনপ্রিয় মুখ টিকটক অপু কারাগারে। আজ মঙ্গলবার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট বেগম মাহমুদা আক্তার এ আদেশ দেন। এর আগে আজ দুপুরে টিকটক অপুকে আদালতে হাজির করে তিনদিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা।

পুলিশ তিনদিনের রিমান্ড আবেদন করেন। অপরদিকে আসামিপক্ষের আইনজীবী রিমান্ড বাতিল করে জামিনের আবেদন করেন। বিচারক উভয় আবেদন নাকচ করে অপুকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

টিকটক অপুকে গতকাল সোমবার রাতে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। সে সময় গ্রেপ্তার করা হয় তার এক সহযোগী নাজমুলকেও৷

এসআই আজিজ তালুকদার বলেন, রোববার উত্তরা ছয় নম্বর সেক্টরের আলাওল অ্যাভিনিউয়ের রাস্তা দখল করে টিকটক অপু ও তার বেশ কয়েকজন সহযোগী আড্ডা দিচ্ছিলেন। সে সময় মেহেদী হাসান নামের এক ব্যক্তি ও তার বন্ধুরা গাড়ি নিয়ে ওই সড়ক ধরে যাচ্ছিলেন। সে সময় মেহেদী রাস্তা ছাড়তে হর্ন দেন। কেন হর্ন দেওয়া হলো তা নিয়ে দুপক্ষের মধ্যে বাকবিতণ্ডার ঘটনা ঘটে।

পরে অপু ও তার সহযোগীরা মিলে মেহেদী হাসান ও তার বন্ধুদের মারধর করেন। মারধরের ঘটনার সময় মেহেদী হাসানদের মুঠোফোনও ছিনতাই করা হয় বলে মামলায় উল্লেখ আছে।

পরদিন অর্থাৎ সোমবার দুপুরে ভুক্তভোগীর বাবা এস এম মাহবুব আলম বাদী হয়ে মারামারি ও ছিনতাইয়ের অভিযোগ এনে উত্তরা পূর্ব থানায় আটজনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ৩০ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় অপু ও সহযোগী নাজমুলকে উত্তরা ৬ নম্বর সেক্টরের আলাওল অ্যাভিনিউয়ের ১২ নম্বর বাড়ির পাশের সড়ক থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

টিকটক অপুর গ্রামের বাড়ি নোয়াখালীর সোনাইমুড়ি। এখন তিনি দক্ষিণখান এলাকার একটি বাসায় থাকেন।

সংবাদের ধরন : বাংলাদেশ নিউজ : নিউজ ডেস্ক