বিস্তারিত

টাইগারদের প্রশংসায় কিংবদন্তীরা

ছবি : সংগ্রহকৃত

চলমান এশিয়া কাপে সংযুক্ত আরব আমিরাত, শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তানকে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছে স্বাগতিক বাংলাদেশ। টুর্নামেন্টজুড়ে বাংলাদেশের পারফরম্যান্স মুগ্ধ করেছে সবাইকে। শুরুতে ভারতের কাছে হারলেও পরের ম্যাচে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ায় টাইগাররা। অপেক্ষাকৃত দুর্বল প্রতিপক্ষ আরব আমিরাতের সঙ্গে জয়ের পর মুখোমুখি হয় এশিয়ার পরাশক্তি শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তানের সঙ্গে। কিন্তু কেউই যেন পাত্তা পেল না টাইগারদের কাছে। বাঘের থাবায় ক্ষত বিক্ষত ‍দুই দলই। ঘরের মাঠে বাংলাদেশ যে এখন প্রায় অপ্রতিরোধ্য।

২০১৫ বিশ্বকাপে দারুণ পারফর্মেন্সের পর ঘরের মাঠে পাকিস্তানকে হোয়াইট হোয়াশ। সিরিজ জয় করে ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষেও। জিম্বাবুয়েকে হারিযে ফর্মের ধারবাহিকতা বজায় রাখা বাংলাদেশ দল এশিয়া কাপেও দেখিয়ে চলেছে নৈপূণ্য। সৌম্য-সাব্বিরদের ব্যাটিংয়ের সঙ্গে তাসকিন মুস্তাফিজদের দুর্দান্ত বোলিং। মাশরাফির নেতৃত্বে বাংলাদেশ যেন অন্যরকম এক দল। টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ও উইকেট শিকারীও বাংলাদেশি। ব্যাটিংয়ে সাব্বির রহমান ও বোলিংয়ে আল আমিন হোসেন রয়েছেন সবার উপরে।

আর বাংলাদেশের এমন পারফর্মেন্সের প্রশংসা করেছেন ক্রিকেট কিংবদন্তীরাও।

শ্রীলঙ্কার সাবেক অধিনায়ক কুমার সঙ্গাকারা টুইট করেন, ‘অসাধারণ জয়। স্কিল, সাহস ও বিশ্বাস। ফাইনালে যাওয়ার যোগ্য তারা। হাথুরুসিংহ ও তার দলকে অভিনন্দন।’

ক্যারিবিয়ান কিংবদন্তী ইয়ান বিশপ বলেন, ‘বাংলাদেশের পারফরম্যান্সে আরো একবার মুগ্ধ। তাদের ধারাবাহিক উন্নতির প্রমাণ এটি। এবং মাশরাফির দারুণ নেতৃত্ব।’

পাকিস্তানের স্পিন গ্রেট ওয়াসিম আকরাম বলেন, ‘আমরা বেশ লড়াই করেছি কিন্তু সেটা যথেষ্ট ছিল না। এমন ম্যাচে ব্যাটিংটা আরো ভালো হওয়া উচিত ছিল। আমি মনে করি ব্যাটিং প্লান ছিল, কিন্তু সেটা কাজে আসেনি। সাবাশ বাংলাদেশ।’

ভারতের ভিভিএস লক্ষণ লিখেন, ‘দারুণ জয়ের জন্য বাংলাদেশকে অভিনন্দন। ২০১৫ বিশ্বকাপের পর থেকে বাংলাদেশ দলের মানসিক অবস্থার ব্যাপক পরিবর্তন হয়েছে।’

আর শ্রীলঙ্কার সাবেক ক্রিকেটার রাসেল আরনল্ড লিখেন, ‘অভিনন্দন বিসিবি টাইগার। দারুণ ক্রিকেট খেলেছো।’

সংবাদের ধরন : খেলা-ধুলা নিউজ : স্টাফ রিপোর্টার