বিস্তারিত

জাতীয় স্বার্থ সমুন্নত রেখে চুক্তি হতে পারে

ছবি : সংগ্রহকৃত

জাতীয় স্বার্থ সমুন্নত রেখে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরে যে কোনো চুক্তি হতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর তেজগাঁওয়ে সড়ক ভবন প্রাঙ্গণে সড়ক ও জনপথ (সওজ) ডিপ্লোমা প্রকৌশলী সমিতির ১৪তম জাতীয় সম্মেলনে ওবায়দুল এই মন্তব্য করেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এপ্রিলে মাথা উঁচু করে বীরে বেশে ভারত যাবেন। সেখানে দেশের স্বার্থে, জনগণের স্বার্থে সার্বভৌমত্ব সমুন্নত রেখে যে চুক্তি জনগণের জন্য প্রয়োজন সেটাই করবেন। এটা তো একতরফা বিষয় নয়। উভয় পক্ষের সম্মতি লাগে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, কোনো চুক্তিই গোপন থাকবে না। তথ্যপ্রবাহের বিস্ফোরণে কোনো কিছুই গোপন থাকে না। গোপন করার তো আমাদের দরকার নেই। জনগণের কাছে কোনো তথ্য গোপন রাখা আমরা সমীচীন মনে করি না। সামরিক হোক, অসামরিক হোক। যে কোনো চুক্তি জাতীয় স্বার্থ সার্বভৌমত্ব সমুন্নত রেখে করতে আপত্তি কোথায়?

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ভারত আমাদের জন্য সংবেদনশীল। ভারত ইস্যু আসলেই আমাদের দেশের একটা মহল গেল রে গেল বলে চিৎকার শুরু করে দেয়। সব ভারত হয়ে গেল। আমাদের দেশে অহেতুক ভারতভীতি কাজ করে, যার বাস্তবের সাথে কোনো সঙ্গতি নেই। তারা আমাদের দুঃসময়ের বন্ধু। তাদের সাথে আমাদের সমতার ভিত্তিতে বন্ধুত্ব হবে। এতে কেউ বড়, কেউ ছোট নয়।

আমাদের সার্বভৌমত্ব, জাতীয় স্বার্থ সমুন্নত রেখে সামরিক, বেসামরিক, বাণিজ্যিক, কূটনৈতিক চুক্তি হতে পারে। আমেরিকা এবং রাশিয়ার সাথে অনেক দেশের সামরিক চুক্তি আছে। গণতান্ত্রিক দেশগুলোর সাথে চুক্তি আছে। এটা নিয়ে গেল রে গেল, ইন্ডিয়া হয়ে গেল এমন অপ্রচার এবং ভারতভীতি থেকে সবাইকে দূরে থাকতে হবে।

 

 

সংবাদের ধরন : র্শীষ সংবাদ নিউজ : নিউজ ডেস্ক