বিস্তারিত

চীনা নাগরিকদের স্বদেশ গমন সাময়িক স্থগিত

ছবি : সংগ্রহকৃত

বাংলাদেশে থাকা চীনা নাগরিকদের নিজ দেশে না যেতে পরামর্শ দিয়েছেন ঢাকায় নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং। বৃহস্পতিবার (৬ ফেব্রুয়ারি) ঢাকায় চীনা দূতাবাসে সাংবাদিকদের ব্রিফিং-এ এ আহবান জানান তিনি।

তিনি বলেন, করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়া পর্যন্ত বাংলাদেশে অবস্থানরত চীনের নাগরিকরা যেন আপাতত স্বদেশে ভ্রমণ না করেন। এই সময়ের মধ্যে বাংলাদেশে কর্মরত চীনের কোম্পানিগুলো যেন স্বদেশ থেকে কর্মী নিয়োগে বিরত থাকে।

তিনি জানান, বাংলাদেশে থাকা চীনা দূতাবাস এবং উন্নয়ন প্রকল্প বা কোম্পানিতে কর্মরত কোনো নাগরিক করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হননি। একইভাবে চীনে অবস্থানরত কোনো বাংলাদেশিও এই ভাইরাসে সংক্রমিত হননি। তাই সবার প্রতি আহবান জানান, সাধারণ নাগরিকরা সতর্ক থাকবেন, কিন্তু তারা যেন আতঙ্কিত না হয়ে পড়েন, কোনো গুজবের শিকার যেন না হন।

বাংলাদেশে আসার জন্য চীনা নাগরিকদের অন অ্যারাইভাল ভিসা সাময়িক স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। করোনা ভাইরাসের পরিপ্রেক্ষিতে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। রবিবার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এ তথ্য জানান।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে বাংলাদেশে আসার জন্য চীনা নাগরিকদের অন অ্যারাইভাল ভিসা সাময়িক স্থগিত করা হয়েছে। চীনের সঙ্গে আলোচনা করেই এ সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা। আগামী এক মাস ভিসা সাময়িকভাবে স্থগিত থাকবে। তবে তারা ভিসা নিয়ে আসতে পারবে। বাংলাদেশে আসতে হলে তাদের মেডিক্যাল সার্টিফিকেট নিয়ে আসতে হবে।

প্রতিরোধ করা না গেলে বিশ্বের ৫০টি দেশে করোনা ভাইরাস দ্রুত ছড়িয়ে পড়বে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। আক্রান্ত হয়ে চীনে একদিনে ৭০ জনের বেশি মানুষ মারা গেছে। এ নিয়ে সেখানে মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৫৬৫-তে। চিকিৎসাধীন ২৮ হাজারের বেশি মানুষ। ইতোমধ্যে ভাইরাসটি ছড়িয়েছে চীনসহ অন্তত ২৮টি দেশে। ভারতসহ দক্ষিণ এশিয়ার ৩টি দেশে ভাইরাস শনাক্ত হওয়ায় এ অঞ্চলের বাকি দেশগুলোও চরম ঝুঁকিতে রয়েছে।

সংবাদের ধরন : র্শীষ সংবাদ নিউজ : নিউজ ডেস্ক