বিস্তারিত

চট্টগ্রাম মেডিকেলের বারান্দায়ও জায়গায় নেই

ছবি : সংগ্রহকৃত

গতকাল রোববার (৮ জুলাই) থেকে চট্টগ্রাম অঞ্চলের বেসরকারি হাসপাতালে অনির্দিষ্টকালের জন্য চিকিৎসা বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে বেসরকারি চিকিৎসা প্রতিষ্ঠান সমিতি। তাদের এ ঘোষণায় সংহতি প্রকাশ করেছে সরকার সমর্থিত বিএমএ চট্টগ্রাম শাখা।

চট্টগ্রামে স্বাস্থ্য বিভাগ ও ওষুধ প্রশাসনের সহায়তায় র‌্যাবের অভিযানের প্রতিবাদে অনির্দিষ্টকালের জন্য সেবা বন্ধ রেখেছে বেসরকারি হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারগুলো। এতে দুর্ভোগে পড়েছেন হাজার হাজার মানুষ। এ অবস্থায় সরকারি হাসপাতালে বাড়ছে রোগীর চাপ।

চিকিৎসকদের ধর্মঘটের খবর না জেনে অনেকেই আশপাশের জেলা উপজেলা থেকে চিকিৎসা নিতে এসে দুর্ভোগে পড়েন। মুমূর্ষু রোগীকে বাঁচাতে বাধ্য হয়ে ছুটে যাচ্ছেন সরকারি হাসপাতালের দিকে। এ অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বাড়ছে রোগীর চাপ।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কর্তৃপক্ষ জানায়, গতকাল থেকে আজ সকাল সোমবার (৯ জুলাই) ৯টা পর্যন্ত বহির্বিভাগে প্রায় দ্বিগুণ টিকেট বিক্রি হয়েছে। জরুরি বিভাগে ভর্তি রয়েছে অতিরিক্ত ৩শ’ রোগী। হাসপাতালের বারান্দায়ও জায়গা হচ্ছে না রোগীদের। এ অবস্থায় বাড়ছে রোগীদের দুর্ভোগ। চিকিৎসা দিতেও হিমশিম খাচ্ছেন চিকিৎসক ও নার্সরা।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. জালাল উদ্দিন বলেন, হাসপাতালে রোগীদের অতিরিক্ত চাপ মোকাবেলা করার জন্য জরুরি বিভাগে চিকিৎসক সংখ্যা বৃদ্ধি করা হয়েছে। বিশেষ করে হার্টের ডাক্তার বাড়ানো হয়েছে।

সংবাদের ধরন : র্শীষ সংবাদ নিউজ : নিউজ ডেস্ক