বিস্তারিত

খুশি-জাহ্নবীর কোভিড ১৯–নেগেটিভ, গৃহপরিচারিকা করোনায় আক্রান্ত

ছবি : সংগ্রহকৃত

করোনা মোকাবিলায় দেশজুড়ে চলছে লকডাউন। স্তব্ধ বিনোদন জগৎ। কোয়ারেন্টাইনে দিন কাটাচ্ছেন তারকারা। অভিনেত্রী জাহ্নবী কাপুর জানালেন এই সময়টা কেমন ভাবে কাটাচ্ছেন তিনি। সম্প্রতি ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন জাহ্নবী। ছোটবেলা থেকে এখনও পর্যন্ত বিভিন্ন ছবি ও ভিডিও দিয়ে তৈরি জাহ্নবীর ভিডিওটি।

ভিডিওটিতে বেশ কিছু ছবিতে জাহ্নবীকে দেখা যাচ্ছে মা শ্রীদেবী, বাবা বনি কাপুর এবং বোন খুশি কাপুরের সঙ্গে। ছবির সঙ্গে সঙ্গে রয়েছে জাহ্নবীর বলা কিছু কথা। কোয়ারেন্টিনে কেমন জীবন যাপন করছেন সেই কথাগুলি তুলে ধরেছেন অভিনেত্রী। তিনি বলছেন, “কে জাহ্নবী কাপুর? মা-বাবা ও বোনের কিছু কিছু অংশ নিয়েই তো আমি তৈরি। ভিন্ন ক্ষেত্রে আমি ভিন্ন ধরনের মানুষ। আমার বন্ধুরা বলে আমি ক্ষেত্রবিশেষে নিজের মতামত বদলাই। আমি ব্যস্ত। আমি প্রচন্ড ঘুরে বেড়াই।

তাই পরিবারের সঙ্গে যথেষ্ট সময় কাটানোর ও সেভাবে সময় থাকে না। আমার বাবা খুব একা বোধ করেন। আমার তার সঙ্গে সময় অনেক বেশি কাটানো উচিত। কিন্তু এখন লকডাউন এর ফলে তো সবকিছুই খুব ধীর স্থির হয়ে গেছে।” জাহ্নবী আরও বলেন, নিজের জীবনকে সব সময় একজন তৃতীয় ব্যক্তির নজর থেকে দেখুন। আমার যেমন মনে হয়, লকডাউন এ নিজের সঙ্গে সময় কাটিয়ে আমি আরো অনেকটা আত্মবিশ্বাসী হয়ে গিয়েছি। আমি সবাইকেই পজিটিভ থাকতে বলবো। আপনাদের যদি বাড়িতে থাকার মতো বিলাসিতা টুকু থেকে থাকে তাহলে নিজেকে এইসময় সৌভাগ্যবান মনে করুন।

এর আগেও জাহ্নবী একটি পোস্ট করেছিলেন যেখানে তিনি বলেছিলেন সেল্ফ আইসোলেশন এ তিনি। জাহ্নবী কাপুরের গৃহপরিচারিকার কোভিড ১৯ পজিটিভ। ওই কর্মীর নাম, চরণ সাধু। বয়স ২৩ বছর।

বনি কাপুর প্রথমেই তাঁর দুই মেয়ে জাহ্নবী কাপুর ও খুশি কাপুরকে আলাদা করে দেন। গৃহপরিচারিকাকেও আলাদা রাখেন। তারপর তাঁর কোভিড পরীক্ষার ব্যবস্থা করেন। খুশি কাপুর ও জাহ্নবী কাপুরও কোভিড ১৯–এর পরীক্ষা করান। তাঁদের পরীক্ষার ফল নেগেটিভ। তারপরও তাঁরা নিয়ম মেনে ১৪ দিন কোয়ারেন্টিন পালন করছেন।

সংবাদের ধরন : বিনোদন নিউজ : নিউজ ডেস্ক