বিস্তারিত

কৃষকের কাছে ডিজিটাল সেবা পৌঁছে দিতে চাই

ছবি : সংগ্রহকৃত

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ডিজিটাল পদ্ধতি ব্যবহার করে আগামীতে কৃষি উৎপাদন বাড়াতে সবাইকে একসঙ্গে কাজ করার আহবান জানান। বিএনপি আমলে সব সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হয় কৃষকরা। আওয়ামী লীগ সরকার সবসময়ই তাদের পাশে থাকে।

বুধবার সকালে, গণভবনে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দেশব্যাপী কৃষকদের ডিজিটাল প্লাটফর্ম “কৃষি বাতায়ন” ও “কৃষক বন্ধু” ফোন সেবার কার্যক্রম উদ্বোধন করে এ আহবান জানান প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার কৃষক, শ্রমিক ও মেহনতি মানুষের জন্য কাজ করে আর বিএনপি আমলে তারা বঞ্চিত হয়। প্রত্যেক কৃষকের দোরগোড়ায় ডিজিটাল সেবা পৌঁছে দেয়া হবে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সারাদেশে ৫ হাজার ২৭৫টি ডিজিটাল সেন্টার গড়ে তোলা হয়েছে।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সব দিক থেকেই বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। বিশ্বে নিজস্ব একটা স্থান করে নিতে সক্ষম হয়েছে। এই ধারাটা অব্যাহত থাকুক আমরা তা চাই।  পুরো বাংলাদেশে ৫ হাজার ২শ ৭৫টি ডিজিটাল সেন্টার গড়ে তোলা হয়েছে।  সেই সঙ্গে আট হাজার ৪শ পোস্ট অফিসকে আমরা ‘ডিজিটালাইজেশন’ করে দিচ্ছি। সেখানে যেমন কর্ম সংস্থান হচ্ছে অপর দিকে মানুষ সেবা পাচ্ছে। ডিজিটাল পদ্ধতি দিয়ে আমাদের কৃষকরা যাতে উপকার ভোগী হতে পারে তারা যেনো সুযোগ সুবিধা পায় এবং উৎপাদন বৃদ্ধির জন্যে কোন সমস্যা দেখা দিলে  তার সমাধানের উপাই কি সেটাও যেমন জানতে পারবে। সেই জন্যেই এই ব্যবস্থাটা নেয়া হয়েছে।’

তিনি আরোও বলেন, কৃষকের কাছে আমরা পৌঁছে দিতে চাই ডিজিটাল সেবা। যার মধ্য দিয়ে কৃষি বিষয়ে সকল ধরনের তথ্য দেশের মানুষ পেতে পারবে। সে জন্যে কৃষি বাতায়ন তৈরি করা হয়েছে। আওয়ামী লীগ, সরকার গঠন করেই কৃষক শ্রমিক মেহনতি মানুষের জন্যে কাজ করে। দুর্ভাগ্য হলো বিএনপি জামাত জোট আসলে সব ধরনের সুযোগ সুবিধা পড়ে যায়। আমরা আমাদের কৃষকদের পাশে সব সময় আছি সব সময় থাকবো সেই ওয়াদা দিচ্ছি।

সংবাদের ধরন : শিরোনাম নিউজ : নিউজ ডেস্ক