বিস্তারিত

কুমিল্লায় কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা

bangla news paper ছবি : সংগ্রহকৃত

কুমিল্লায় সেনানিবাস এলাকায় এক কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

রোববার রাতে ময়নামতি সেনানিবাসের অলিপুর এলাকায় একটি কালভার্টের কাছ থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয় বলে জানিয়েছেন কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ আল মামুন।

নিহত সোহাগী জাহান তনু (১৯) কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের ইতিহাস বিভাগের স্নাতক দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী ও ভিক্টোরিয়া কলেজ থিয়েটারের (ভিসিটি) সদস্য ছিলেন।

সোহাগী ময়নামতি সেনানিবাস এলাকার অলিপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী ইয়ার হোসেনের মেয়ে।

তাদের গ্রামের বাড়ি তিতাস উপজেলায়। তারা অলিপুর এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকেন। দুই ভাই এক বোনের মধ্যে সোহাগী মেজ।

পরিবারের বরাত দিয়ে ভিক্টোরিয়া কলেজছাত্র মাইনুল হক স্বপন জানান, আর্থিক অস্বচ্ছলতার কারণে সোহাগী অলিপুর গ্রামেই এক বাসায় টিউশনি করতেন। রোববার সন্ধ্যায় টিউশনি শেষে বাসায় ফেরার পথে তিনি নিখোঁজ হন। পরে তার লাশ পাওয়া যায়।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মামুন সাংবাদিকদের বলেন, “মরদেহ দেখে ধারণা করা হচ্ছে, তাকে ধর্ষণ ও শারীরিকভাবে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়।”

সোমবার দুপুরে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে লাশের ময়নাতদন্ত করা হয় বলে জানান তিনি।

সংবাদের ধরন : অপরাধ নিউজ : স্টাফ রিপোর্টার