বিস্তারিত

করোনা মোকাবিলার কাজ শুরু করবেন জো বাইডেন

ছবি : সংগ্রহকৃত

জো বাইডেন আমেরিকাবাসীকে বার্তা দিলেন, ক্ষমতায় এলে আমেরিকার করোনা মোকাবিলার কাজ শুরু করবেন তিনি। একই সঙ্গে তিনি জানিয়ে দিলেন মার্কিন ‘মুখ’ হতে চান তিনি। চান সবার প্রেসিডেন্ট হতে। যে তাঁকে ভোট দিয়েছেন, যে দেননি-প্রত্যেককে সঙ্গে নিয়েই চলবেন তিনি।

বাইডেন জানিয়ে রাখলেন যে, ক্ষমতায় এলে দেশের করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে চেষ্টার কসুর করবেন না। তিনি বলেন, ‘সবাইকে জানাচ্ছি, প্রথম দিন থেকেই এই অতিমারী নিয়ন্ত্রণের কাজ শুরু করব। এ বারের নির্বাচনের অন্যতম প্রধান ইস্যু ছিল দেশে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি। সেই ইস্যু থেকে পিছিয়ে আসার কোনও প্রশ্নই নেই বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন বাইডেন।

আমেরিকায় মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় এক কোটি। মৃত্যু হয়েছে ২ লক্ষ ৩৬ হাজার মানুষের। দেশে করোনার সংক্রমণ যখন শীর্ষে পৌঁছেছিল, সে সময়ও লকডাউনের পথে হাঁটেনি ট্রাম্প প্রশাসন। বিশেষজ্ঞরা বার বার সতর্ক করা সত্ত্বেও সে কথা কানে তোলেননি তিনি। ফলে হুহু করে সংক্রমণ বেড়েছে। বেড়েছে মৃত্যুও। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ট্রাম্পের এই উদাসীন মনোভাবই প্রতিফলিত হচ্ছে ভোটবাক্সে।

এর সঙ্গে আম-আমেরিকার মুখ হওয়ার বার্তাও দিয়েছেন বাইডেন। ট্রাম্পের খামখেয়ালি মানসিকতা ও বিরোধীদের প্রতি কট্টর মনোভাবের প্রতি ইঙ্গিতে কটাক্ষ করে ওল্ড জো বলেন, ‘মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলে প্রতিটি মানুষের জন্য কাজ করব। সে আমাকে ভোট দিক বা না দিক। কারণ আমরা কেউ কারও শত্রু নই। আমরা সবাই মার্কিন নাগরিক।’

যুক্তরাষ্ট্রের ২৩১ বছরের ইতিহাসে বিরল একটি রেকর্ড গড়তে যাচ্ছেন জো বাইডেনের স্ত্রী জিল বাইডেন। হোয়াইট হাউসের ব্যস্ততা সামলে শিক্ষকতা চালিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করছেন তিনি।

সংবাদের ধরন : আন্তর্জাতিক নিউজ : নিউজ ডেস্ক