বিস্তারিত

এএসপি স্ত্রী ও এসআই স্বামী

ছবি : সংগ্রহকৃত

যখন অহরহ পোস্ট দেখি মেয়েরা লোভী হয়, মেয়েরা বিসিএস স্বামী খুঁজে পেলে সব ছাড়তে পারে, মেয়েরা টাকা আর অবস্থান ছাড়া আর কিছু বোঝে না। আমার তখন খুব হাসি পায়, মায়ের জাত নিয়ে কি আমাদের চিন্তাধারা এটা ভেবে।

কথাগুলো লিখেছেন বাংলাদেশ পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) উজ্জ্বল ঘোষ জিতু। বর্তমানে তিনি কুমিল্লা জেলার মীরপুর হাইওয়ে পুলিশে কর্মরত আছেন।

উজ্জ্বল ঘোষ জিতু ২০২০ সালের ৩০ নভেম্বর বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন উর্মী দেবের সঙ্গে। উর্মী আখাউড়া রেলওয়ে সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি)।

সম্প্রতি এই দম্পতির ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। ছবি ভাইরাল হওয়ার পর তাঁদের প্রশংসায় সবাই পঞ্চমুখ। সবাই তাঁদের সাধুবাদ জানিয়েছেন।

জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উজ্জ্বল ঘোষ জিতু তাঁর স্ত্রী উর্মী দেবের ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেন। ওই পোস্টে উপপরিদর্শক (এসআই) উজ্জ্বল ঘোষ জিতু লিখেন, ‘পুলিশিং পেশার ব্যাপারে যাদের একটু ধারণা আছে তারা বলতে পারবেন অবস্থানগত দিক থেকে আমার সহধর্মিণীর অবস্থান আমার থেকে কতটা উপরে। না, আমাদের বিয়ের পর আমাদের কারও চাকরি হয়নি। আমার আর আমার সহধর্মিণীর অবস্থানের এই আকাশ পাতাল পার্থক্যের তোয়াক্কা না করে এই দেবীতুল্য মানুষটা আমাকে আপন করে নিয়েছিলেন।’

এসআই উজ্জ্বল ঘোষ জিতুর বাড়ি ফরিদপুরে। বাবা ছিলেন একজন পরিবহণ ব্যবসায়ী। দুই ভাই ও এক বোনের মধ্যে জিতুই বড়।

জিতু বলেন, ‘অন্যান্য পোস্টের মতো ফেসবুকে পোস্টটি দিয়েছিলাম। পোস্টটি এভাবে ভাইরাল হবে আমি বুঝতে পারিনি। তবে বিষয়টি মানুষ পজিটিভলি নিয়েছে। আমরা ব্যক্তিগত জীবনে অনেক সুখী। আমার স্ত্রীও খুব ভালো মানুষ। তাঁর সততার কোনো কমতি নেই। আমার মতো একজন নগন্য মানুষকে বিয়ে করে বুঝিয়ে দিয়েছেন তিনি আসলেই কতটা নির্লোভ ও নিরহংকার।’

এএসপি উর্মী দেব বলেন, ‘আমার বাবার বাড়ি চট্টগামে। আমার বাবা একজন আইনজীবী, এক ভাই ও এক বোনের মধ্যে আমিই বড়। বিসিএসের পর এএসপি পদে চাকরি জীবনের প্রথম পোস্টিং আখাউড়া সার্কেলেই। ছবিটি সে (স্বামী) আমার অফিসে এসে তুলেছিল। ছবির বিষয়ে আমার আত্মীয়স্বজন ও সহকর্মীরা ফোন করে জানিয়েছেন।

এএসপি বলেন, ‘কোনো একটি সম্পর্ক যখন পরিণতি পায়, তাহলে অবশ্যই ভালো লাগার বিষয়। আমাদের জীবন একটি, সব কিছু হিসাব-নিকাশ করে করা যায় না। বৃহৎ স্বার্থের জন্য ক্ষুদ্র বিষয়গুলো পরিহার করতে হয়। শিক্ষিত মানুষ হয়ে দৃষ্টিভঙ্গি যদি না পাল্টাই, তাহলে কে পাল্টাবে? সবার আগে নিজের মনমানসিকতা বদল করতে হবে।

সংবাদের ধরন : বাংলাদেশ নিউজ : নিউজ ডেস্ক