বিস্তারিত

উত্তর কোরিয়ার আকাশে ‘মার্কিন যুদ্ধবিমান’

ছবি : সংগ্রহকৃত

bd news,bdnews,bdnews24,bdnews24 bangla,bd news 24,bangla news,bangla,bangla news paper,all bangla newspaper,bangladesh newspapers,all bangla newspaper,bangla news paper,bangladesh newspapers,all bangla newspapers,bd news 24,bangla news today,bd news paper,all bangla news paper,bangladeshi newspaper,all bangla newspaper,all bangla newspapers,bdnews,bangla news,bangla newspaper,bangla news paper,bangla news 24,banglanews,bd news 24,bangla news today,bd news paper,all bangla news paper,bangladeshi newspaper,all bangla newspaper,all bangla newspapers

সম্প্রতি জাপানের দিকে পরমাণু অস্ত্র ছুঁড়েছে উত্তর কোরিয়া। এরপর আবার দক্ষিণ কোরিয়াকেও মিসাইল পরীক্ষা করতে দেখা গেছে।

এবার উত্তর কোরিয়ার আকাশে উড়ল মার্কিন বোমারু বিমান ও যুদ্ধবিমান।

সোমবার উত্তর কোরিয়ার আকাশে চারটি F-35B যুদ্ধবিমান ও দুটি B-1B বোমারু বিমান উড়িয়েছে আমেরিকা। দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এই খবর জানানো হয়েছে। উত্তর কোরিয়ার হুমকির মুখে আমেরিকা ও দক্ষিণ কোরিয়া যৌথভাবে শক্তি প্রদর্শন করতেই এই বিমান মহড়া চালিয়েছে বলে জানা গেছে। গত ৩ সেপ্টেম্বর উত্তর কোরিয়া তাদের সবচেয়ে শক্তিশালী পরমাণু অস্ত্রের পরীক্ষা চালানোর পর এই প্রথম আমেরিকার পক্ষ থেকে এই ধরনের মহড়া চালানো হল।

এই মহড়ায় মার্কিন যুদ্ধবিমানের পাশাপাশি ছিল দক্ষিণ কোরিয়ার F-15K ফাইটার জেট। এর আগে ৩১ অগাস্ট দুই দেশ একইভাবে বিমান উড়িয়েছিল। আগেই হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছিল, উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে যেকোনও মুহূর্তে সামরিক পদক্ষেপ নিতে পারে আমেরিকা। যদি পিয়ংয়ংয়ের বিরুদ্ধে নতুন নিষেধাজ্ঞা পরমাণু ও ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা বন্ধে ব্যর্থ হয় তবে সামরিক পদক্ষেপ নেওয়ার কথা ভাববে ওয়াশিংটন। এমনটাই জানিয়েছিল আমেরিকা। গত একমাসে একাধিকবার মিসাইলের পরীক্ষা করেছে উত্তর কোরিয়া। এরপরেই আমেরিকার পক্ষ থেকে কড়া এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়।

আমেরিকার পক্ষ থেকে দেওয়া হুঁশিয়ারিতে বলা হয়, উত্তর কোরিয়াকে বারবার এই বিষয়ে শান্ত থাকতে বলা হচ্ছে। এমনকি আলোচনার মাধ্যমেও সমস্ত সমস্যা সমাধান করার কথা বলা হচ্ছে। কিন্তু তা না করে একের পর এক মিসাইলের পরীক্ষা করে যাচ্ছে উত্তর কোরিয়া। কিন্তু নতুন এই নিষেধাজ্ঞা না মানলে উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে সামরিক অভিযান চালানো ছাড়া আর কোনও রাস্তা খোলা থাকবে না বলে মনে করছেন অনেকে।

সংবাদের ধরন : আন্তর্জাতিক নিউজ : নিউজ ডেস্ক