বিস্তারিত

ইউনাইটেড হাসপাতালকে নিহতদের স্বজনদের সঙ্গে সমঝোতার নির্দেশ

ছবি : সংগ্রহকৃত

রাজধানীর গুলশানে ইউনাইটেড হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডে ৫ জনের মৃত্যুর ঘটনায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে নিহতের পরিবারের করা ক্ষতিপূরনের দাবি ১২ জুলাইয়ের মধ্যে নিষ্পত্তি করার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। অন্যথায় ১৩ জুলাই এ বিষয়ে পরবর্তী আদেশ দেবেন আদালত।

সোমবার (২৯ জুন) বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিমের ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালত ইউনাইটেড কর্তৃপক্ষকে নিহতদের পরিবারের সাথে সমঝোতার নির্দেশ দিয়েছেন।

আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেছেন ব্যারিস্টার মুনতাসির উদ্দিন আহমেদ, সৈয়দ রিদওয়ান হাসান। ইউনাইডেট হাসপাতালের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন আহমেদ, মুস্তাফিজুর রহমান খান।

আইনজীবী ব্যারিস্টার মুনতাসির উদ্দিন আহমেদ বলেন, পূর্ব নির্ধারিত তারিখ অনুযায়ী আজ এ বিষয়ে দীর্ঘ শুনানি হয়েছে। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত নিহতের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দাবি করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করতে বলেছেন। আর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে ওই সব আবেদন আগামী ১২ জুলাইয়ের মধ্যে মীমাংসা করতে বলেছেন, অন্যথায় ১৩ জুলাই আদালত আদেশ দেবেন।

গত ৩০ মে রাজধানীর গুলশানের ইউনাইটেড হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ইউনিটে এসি বিস্ফোরণের আগুনে পাঁচ জনের মৃত্যুর ঘটনায় প্রয়োজনীয় নির্দেশনা চেয়ে রিটটি দায়ের করেছিলেন আইনজীবী নিয়াজ মো: মাহাবুব ও ব্যারিস্টার সাহিদা সুলতান শীলা।

ওই রিটের শুনানি নিয়ে আদালতের আদেশের পর অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় পুলিশের আইজি, ফায়ার ব্রিগেড কর্তৃপক্ষ ও রাজউকের কাছে পৃথক পৃথক রিপোর্ট চেয়েছিলেন হাইকোর্ট। পরে আদালতে দাখিল করা তিনটি প্রতিবেদনে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের অবহেলার তথ্য উঠে আসে।

প্রসঙ্গত, গত ২৭ মে রাতে রাজধানীর গুলশানের ইউনাইটেড হাসপাতালের করোনা ইউনিটে অগ্নিকাণ্ডে পাঁচ জনের মৃত্যু হয়েছে। পাঁচ জনের মধ্যে চার জন পুরুষ ও একজন নারী। নিহতরা হলেন- মাহবুব এলাহী চৌধুরী (৫৭), মনির হোসেন (৭৫), ভেরন অ্যান্থনি পল (৭৪), খোদেজা বেগম (৭০) ও রিয়াজ উল আলম (৫০)।

সংবাদের ধরন : বাংলাদেশ নিউজ : নিউজ ডেস্ক