বিস্তারিত

আমার শরীরের পরিবর্তন হচ্ছে : প্রিয়াঙ্কা

ছবি : সংগ্রহকৃত

বিশ্বসুন্দরী খেতাব অর্জনের পর বলিউডের শীর্ষস্থানীয় অভিনেত্রী। আর এখন হলিউডের বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব। ক্যারিয়ারে প্রায় সবই করে ফেলেছেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া।

দীর্ঘদিন ধরে বিনোদন দুনিয়ায় প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। ভালোই জানেন বিনোদন ব্যবসা সম্পর্কে। জানেন, এই দুনিয়ায় রূপের কদর সম্পর্কে। কিন্তু এত কিছু নিয়ে ভাবিত নন তিনি। বললেন, তাঁর বয়স যখন তিরিশ ছুঁই ছুই, তখন থেকে নিজের চেহারার প্রতি অদ্ভুত ভালোলাগা শুরু হয় তাঁর। তাঁর চিন্তা এমন, ‘এই হচ্ছি আমি, হয় গ্রহণ করো, নয় কেটে পড়ো।

সম্প্রতি জীবনধারাবিষয়ক আন্তর্জাতিক সাময়িকী ‘ইলে’-তে নিজের বিবাহিত জীবন, ক্যারিয়ার, চেহারাসহ নানা প্রসঙ্গে মুখ খোলেন সাবেক বিশ্বসুন্দরী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া।

নিজের শরীর-রূপ সম্পর্কে সচেতন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। পেশা সম্পর্কেও সচেতন। তিনি জানেন, তাঁর পেশায় রূপ ও চেহারা কতটা গুরুত্বপূর্ণ। বললেন, আমি এ ব্যবসায় জড়িত। নিজের সেরা লুকটাই চাই, কিন্তু আসল কথাটা হলো, যতটা আমার দ্বারা সম্ভব। আমি ২১ বছরের নই, আর সেটা দেখানোর জন্য কখনো চেষ্টাও করি না! আমার শরীরের পরিবর্তন হচ্ছে, অন্য রকম হচ্ছে আমার শরীর।

২০১৮-এর ডিসেম্বরে ভারতের যোধপুরের উমেদ ভবন প্রাসাদে রাজকীয় আয়োজনে সাতপাকে বাঁধা পড়েন বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ও মার্কিন গায়ক-গীতিকার নিক জোনাস। হিন্দু ও খ্রিস্টান রীতিতে বিয়ে হয় তাঁদের।

বিবাহপূর্ব ও বিবাহপরবর্তী জীবন প্রসঙ্গে প্রিয়াঙ্কা বলেন, এটা একদম আলাদা। স্বামী থাকা আর বয়ফ্রেন্ড থাকাটা যে সম্পূর্ণ আলাদা ব্যাপার, আগে কখনো বুঝিইনি। তুমি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ, এই মানুষটি আমার পরিবার আর এই পরিবার আমিই বেছে নিয়েছি। একটা অদ্ভুত দায়িত্বও তৈরি হয় পরিবারের প্রতি। এবং সেখান থেকেই নিরাপত্তাটা আসে। আমরা প্রতিদিনই একে অন্যের কাছ থেকে শিখি।

নিককে বিয়ের পর প্রিয়াঙ্কা শুধু স্বামীই পাননি, পেয়েছেন দুই বোন। তিনি বলেন, ‘আমার বোন ছিল না। ড্যানিয়েল (জোনাস) ও সোফিকে (টার্নার) পাওয়াটা সত্যিই দারুণ। সোফি খুবই মেধাবী, মজার মানুষ, আমরা বাইরে গেলে খুব মজা করি।

 

সংবাদের ধরন : বিনোদন নিউজ : নিউজ ডেস্ক