বিস্তারিত

আফগানিস্তানের মসজিদে বন্দুকধারীদের গুলি, নিহত ৯

ছবি : সংগ্রহকৃত

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় আফগানিস্তানের মসজিদে ঢুকে এলোপাথাড়ি গুলি চালাল বন্দুকধারীরা। পারওয়ান মসজিদে এই হামলায় কমপক্ষে ৯ জন নিহত হয়েছেন। আহত কমপক্ষে ১০। নমাজ আদায়ের সময় নিরীহ নাগরিকদের উপর অতর্কিতে এই হামলা চালানো হয়।

তালিবানেরা এই হিংসার দায় আফগান নিরাপত্তা বাহিনীর উপর চাপিয়েছে। তালিবান নেতাকে উদ্ধৃত করে আফগানিস্তানের প্রথম সারির একটি সংবাদ সংস্থায় দাবি করা হয়, নিরাপত্তা বাহিনীই এই হামলার জন্য দায়ী।

সূত্রের খবর, চারিকর শহরের খালা জায়িতে পারওয়ান মসজিদে ঢুকেছিল বন্দুকবাজেরা। তালিবানদের মুখপাত্র জবিউল্লাহ মুজাহিদ ‘খাম্মা প্রেস’-এর কাছে দাবি করে, নিরাপত্তা বাহিনীর জওয়ানরা ঢুকেই নিরীহদের গুলিতে ঝাঁঝরা করেছে। এদিনের ঘটনায় তালিবানদের কোনও যোগ নেই।

জানা গিয়েছে, যে এলাকায় এদিন হামলা হয়েছে, সেটি তালিবান অধ্যুষিত। কোনও জঙ্গি সংগঠন এই হামলার দায় নেয়নি।

২০১৯ সালের অক্টোবরে আফগানিস্তানেরই পশ্চিমাঞ্চলে এক মসজিদে জুমার নামাজের সময় বিস্ফোরণে কমপক্ষে ৬২ জন নিহত হয়েছিলেন। নানগাহার প্রদেশের গভর্নর আয়াতুল্লাহ খোগিয়ানি সেসময় জানান, মসজিদে প্রার্থনায় আসা নিরীহ মানুষের উপর হামলা হয়। হাসকা মেনা জেলায় জওদারা এলাকার ওই মসজিদের ভিতরে আগে থেকেই বোমা মজুদ করে রাখা হয়েছিল। বিস্ফোরণের তীব্রতায় মসজিদটির ছাদ সম্পূর্ণ উড়ে যায়। এক বছর আগের ওই হামলার দায়ও কেউ স্বীকার করেনি। তবে, আফগান প্রেসিডেন্টর মুখপাত্র এই হামলার জন্য তালিবানদেরই অভিযুক্ত করেছিলেন।

সংবাদের ধরন : আন্তর্জাতিক নিউজ : নিউজ ডেস্ক