বিস্তারিত

আইএসের বিরুদ্ধে গণহত্যার অভিযোগ যুক্তরাষ্ট্রের

all bangla news paper ছবি : সংগ্রহকৃত

ইয়াজিদি সম্প্রদায়, খ্রিস্টান এবং শিয়া মুসলিমদের ওপর সশস্ত্র সুনি্নপন্থী সংগঠন আইএস গণহত্যা চালিয়েছে বলে মনে করছে যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরির মতে স্বঘোষণা, মতাদর্শ এবং কর্মকা–সব কিছুর দিক দিয়েই আইএস গণহত্যাকারী বলে বিবেচিত হবে।

সিরিয়া এবং ইরাকের বিভিন্ন এলাকায় আইএস মানবতা বিরোধী অপরাধ করছে এবং জাতিগোষ্ঠীগত শুদ্ধিকরণ অভিযান চালাচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘এসব অপরাধের কথা উল্লেখ করা জরুরি। কিন্তু সবচে জরুরি বিষয় হচ্ছে তাদেরকে থামানো।’

আইএসের নৃশংসতার কথা উল্লেখ করতে গিয়ে কেরি বলেন, ‘বাস্তব ব্যাপারটা হচ্ছে, আইএস খ্রিস্টানদেরকে হত্যা করে কারণ তারা খ্রিস্টান। ইয়াজিদিদেরকে হত্যা করে কারণ তারা ইয়াজিদি। শিয়াদেরকে হত্যা করে কারণ তারা শিয়া। আর এর মধ্য দিয়ে সংগঠনটি এমন বার্তাই দিতে চায় যে যারাই তাদের মতাদর্শের অনুসারী নয় তারা রেহাই পাবে না।’

উল্লেখ্য, নিজেদের নিয়ন্ত্রিত এলাকায় আইএসের কর্মকা-কে গণহত্যা বলে বিবেচনা করা হবে কিনা তার ঘোষণা দিতে জন কেরিকে ১৭ মার্চের কংগ্রেসনাল সময়সীমা নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছিল। তার এ ঘোষণার মধ্য দিয়ে মধ্যপ্রাচ্যে যুক্তরাষ্ট্রের নীতির কোনও পরিবর্তন হচ্ছে কিনা সে ব্যাপারে কোনও ইঙ্গিত দেননি কেরি। তবে গণহত্যার জন্য দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে অপরাধের অভিযোগ আনা এবং তাদের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক নিরপেক্ষ তদন্তের আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

সংবাদের ধরন : আন্তর্জাতিক নিউজ : স্টাফ রিপোর্টার