বিস্তারিত

স্বতন্ত্র ও বিএনপির প্রার্থীরা অসহায়

prothom alo ছবি : সংগ্রহকৃত

বরিশালে নির্বাচন শুরু হওয়ার এক ঘণ্টার মধ্যেই অসহায়ত্ব প্রকাশ করতে শুরু করেছেন বিএনপির অনেক প্রার্থী। এর মধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থীরাও রয়েছেন। কেন্দ্র থেকে সমর্থকদের বের করে দেওয়া, এজেন্টকে ঢুকতে না দেওয়া, নৌকা প্রতীক ছাড়া ভোট দিতে না দেওয়াসহ বিভিন্ন অভিযোগ করেছেন তাঁরা। প্রশাসন সব দেখেও না দেখায় অসহায়বোধ করছেন বলেও জানিয়েছেন।

সদর উপজেলার চরকাউয়া ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. শাহজাহান বিডি নিউজ ডট নিউজ কে বলেন , বিভিন্ন কেন্দ্রে আওয়ামী লীগের লোকজন বহিরাগত ব্যক্তিদের নিয়ে অবস্থান নিচ্ছে। আমাদের লোকজন থাকতে পারছে না। স্বতন্ত্র হিসেবে প্রচণ্ড অসহায় বোধ করছি।

পাশের রায়পাশা-কড়াপুর ইউনিয়নের বিএনপির প্রার্থী নুরুল আমিন প্রথম আলোকে বলেন, পপুলার মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিবপাশা কেন্দ্রসহ বিভিন্ন কেন্দ্রে আমাদের লোকজনকে আওয়ামী লীগ বের করে দিচ্ছে। প্রশাসন দেখেও না দেখার ভান করছে।

কশিপুর ইউনিয়নের বিএনপির প্রার্থী মো. হোসেন শিকদার বলেন, তিলককলাডেমা কেন্দ্রে তাঁর এজেন্টকে আওয়ামী লীগের লোকজন ঢুকতেই দেয়নি। মগরপাড়া, লাকুটিয়া, কলসগ্রাম কেন্দ্রগুলোতে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতীকে সিল না মারলে কাউকে ভোট দিতে দেওয়া হচ্ছে না।

এসব অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে সদর উপজেলার নির্বাচন কর্মকর্তা আব্দুল মান্নান প্রথম আলোকে বলেন, বিচ্ছিন্নভাবে দু-একটা ঘটনা ঘটছে। রায়পাশা-কড়াপুরের কয়েকটি কেন্দ্রের বাইরে দুই পক্ষের মধ্যে কিছু ঘটনা ঘটেছে। কেন্দ্রের ভেতরের পরিবেশ এখনো ঠিক আছে। একটি কেন্দ্রে এজেন্ট ঢুকতে পারেনি বলে আমরা জানতে পেরেছি। সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করছি।

সদর উপজেলার চরবাড়িয়া ইউনিয়নের মকবুল হোসেন প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের সামনে গিয়ে দেখা গেছে, ভোটাররা আসছেন। পুরুষের চেয়ে নারী ভোটার বেশি। এসব কেন্দ্রের সামনে নৌকা প্রতীক নিয়ে সমর্থকেরা ভিড় করেছেন। পুলিশের সঙ্গে তাঁদের বাগ্‌বিতণ্ডা হচ্ছে। পুলিশ বের করে দিলেও তাঁরা আবার কেন্দ্রে ঢোকার চেষ্টা করছেন।

সংবাদের ধরন : বাংলাদেশ নিউজ : বিডি নিউজ