বিস্তারিত

অবশেষে করোনার ঔষধ পাওয়া গেছে

ছবি : সংগ্রহকৃত

অবশেষে করোনাভাইরাস এর ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা প্রমাণিত হয়েছে বলে দাবি করেছে ডা. অ্যান্থনি ফাউচি। বুধবার (২৯ এপ্রিল) মার্কিন প্রেসিডেন্টের কার্যালয়ে তিনি এ তথ্য জানিয়েছেন।

আমেরিকান সরকারের সংক্রামক ব্যাধি বিষয়ক শীর্ষ বিশেষজ্ঞ ড. অ্যান্থনি ফাউচি বলছেন, করোনাভাইরাসের রোগীর ওপর পরীক্ষা চালিয়ে প্রাথমিক যে ফলাফল পাওয়া গেছে তাতে আশাবাদী। বিভিন্ন প্রান্তের ১০৬৩ মানুষের ওপর পরিচালিত একটি গবেষণার তথ্য তুলে ধরেন যুক্তরাষ্ট্রের এই শীর্ষস্থানীয় চিকিৎসক।

তিনি জানান, তাদের বেশির ভাগের মধ্যে ‘রেমডেসিভির’ দেয়া হয়েছিল। তাতে দেখা গেছে রেমডেসিভির গ্রহণকারীরা গড়ে ১১ দিনের মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন। অন্যদিকে প্লেসেবো গ্রহণকারীদের সুস্থ হতে সময় লেগেছে গড়ে ১৫ দিন।

জিলেড নামের একটি আমেরিকান ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি তাদের উৎপাদিত ওষুধ ’রেমডিসিভির’ নিয়ে এক বিবৃতি দিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব এ্যালার্জি এ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস এর চালানো এক পরীক্ষা বা ট্রায়াল রানের পর ইতিবাচক উপাত্ত পাওয়া গেছে, এবং তাদের এই পরীক্ষা তাদের প্রাথমিক লক্ষ্য অর্জন করতে পেরেছে। ’রেমডিসিভির’ হচ্ছে এমন একটি এ্যান্টি-ভাইরাল ওষুধ যা ইবোলা রোগের চিকিৎসার জন্য তৈরি হয়েছিল।

বিবিসি‌র জেমস গ্যালাহার জিলেডের এই বিবৃতি ব্যাখ্যা করে বলছেন, কঠিন মেডিক্যাল শব্দ বাদ দিয়ে সোজা কথায় বলা যায়, জিলেড জানাচ্ছে যে ’রেমডিসিভিরে’ কাজ হয়। তবে আমরা যা জানি না, তা কতটা ভালোভাবে এটা কাজ করে এবং তাদের তথ্যপ্রমাণ কতটা জোরালো।

জিলেড নামের একটি আমেরিকান ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি রেমডিসিভির ওষুধের নির্মাতা তবে কোম্পানিটি ইঙ্গিত দিচ্ছে যে রেমডিসিভির যত আগে আগে দেয়া যায় ততই কার্যকর।

জিলেড বলছে, ‍”আগেভাগেই চিকিৎসা দেয়া হয়েছে এমন শতকরা ৬২ ভাগ রোগীকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেয়া সম্ভব হয়েছে। আর যেসব রোগীকে দেরিতে দেয়া হয়েছে তাদের শতকরা ৪৯ ভাগ হাসপাতাল ত্যাগ করেছে।

 

 

সংবাদের ধরন : আন্তর্জাতিক নিউজ : নিউজ ডেস্ক